ছ’শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণ

নোবিপ্রবিতে বাজেট অলিম্পিয়াড

বাজেট বিষয়টিকে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে আাগ্রহের বিষয় করে তোলা, দেশব্যাপী তরুণ বাজেট বিতার্কিক গড়ে তোলা এবং তরুণদের নেতৃত্বে বাজেট বিকেন্দ্রীকরণ, বাজেটকে আরো স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) বাজেট অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইদ্রিস মিলনায়তনে বাজেট অলিম্পিয়াড ২০১৯-এর নোয়াখালী অঞ্চলের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন ও বিশ^বিদ্যালয়ের রয়েল ইকোনোমিক্স ক্লাব ও একশানএইড বাংলাদেশের উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর এবং হাতিয়া সহ বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ছয় শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করেন। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মেদ মোকাম্মেল করিম তৌফিক সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নোবিপ্রবি অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সোনিয়া আফরিন এ্যলি, বাজেট অলিম্পিয়াডের ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেটর নুরুল আলম মাসুদ ও গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের যুগ্ম সম্পাদক সেকান্দার আলী মিনা প্রমুখ। অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী সত্যজিৎ চক্রবর্তীর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন রয়্যাল ইকনোমিক্স ক্লাবের প্রেসিডেন্ট মহিউদ্দীন খন্দকার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন বলেন, জাতীয় বাজেট এবং পরিকল্পনা বিষয়ে তরুণদের দক্ষতা বাড়াতে এই ধরণের আয়োজন খুবই প্রশংসনীয়। এই আয়োজনের মধ্যদিয়ে তরুণরা বাজেটের গণতন্ত্রায়ন ও জনঅংশগ্রহণ তৈরিতে সক্রিয় ভূমিকা রাখবে। ব্যক্তিগত বাজেটের সদ্ব্যবহারের মধ্যদিয়ে জাতীয় পর্যায়েও এর নৈতিক প্রতিফলন সম্ভব। সকল রকম দুর্নীতি প্রতিরোধ এবং বাজেটের উপযুক্ত ব্যবহার নিশ্চিত করতে ব্যক্তিগত মূল্যবোধ জাগ্রত করা জরুরি। 

বাজেট অলিম্পিয়াডের ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেটর নুরুল আলম মাসুদ বাজেট কেবল অর্থনীতিবিদদের বিষয় বলে যে ধারণা রয়েছে সেই গন্ডির বাইরে এসে বাজেটের নানান দিকগুলো বিষয়ে তরুনদের ভাবনা এবং আলোচনার প্রয়োজনীতার কথা বলেন। এছাড়াও বক্তারা সরকারী পলিসিগুলো নিয়ে সচেতনতা, বাজেট বিতর্ক, আদর্শ নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার জন্য তরুনদের প্রতি আহবান করেন। 

অনুষ্ঠানের শেষে বিজয়ীদের মধ্যে মেডেল ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ২০জন অংশগ্রহণকারী আগামি মাসে অনুষ্ঠিতব্য অলিম্পিয়াডের গ্রান্ড ফিনালে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের প্রতিযোগীদের সাথে প্রতিযোগিতায় অংশ নিবেন।


মন্তব্য লিখুন :