আওয়ামী লীগ প্রশাসনকে দিয়ে ভোট চুরির চেষ্টা করছে- সোনাইমুড়ীতে ব্যারিস্টার খোকন

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান নোয়াখালী-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন- আওয়ামী লীগ নেতাদের জনসমর্থন নেই। বিএনপির জনসমর্থন দেখে তারা দেউলিয়া হয়ে গেছে। আর এ জন্য তারা প্রশাসনের লোকজন দিয়ে নির্বাচনে ভোট চুরির চেষ্টা করছে। জনগন ঐক্যবদ্ধ আছে কোন লাভ হবে না। নির্বাচনে কোন প্রকার অনিয়ম ও সহিংসতার ঘটনা ঘটলে তার দায় নির্বাচন কমিশনকে নিতে হবে।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে আসন্ন ১৪ ফেব্রুয়ারি সোনাইমুড়ী পৌরসভা নির্বাচনের দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মোতাহের হোসেন মানিকের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় এসব কথা বলেন তিনি। 

সোনাইমুড়ী বাজার ও বাইপাসের গণসংযোগ এবং পথসভায় ব্যারিস্টার খোকন আরও বলেন, বিএনপির পক্ষে গণজোয়ার দেখে ভীত হয়ে তাদের ওপর হামলা-মামলা চালাচ্ছে আওয়ামী লীগ। ভোট চুরি ঠেকাতে জনগনকে নিজের দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে থেকে ভোট কেন্দ্র পাহারা দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সোনাইমুড়ী পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী মোতাহের হোসেন মানিক, উপজেলা বিএনপির সভাপতি আনোয়ারুল হক কামাল, সাধারণ সম্পাদক কুতুব উদ্দিন সানি, সাংগঠনিক সম্পাদক দিদার, বিএনপি নেতা এড. তুহিন চৌধুরী, এড. মাহমুদ শাকিল প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি রবিবার সোনাইমুড়ী পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মেয়র পদে ৪, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৯ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। পৌরসভাটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ২৫হাজার ২৩২জন। যার মধ্যে ১২হাজার ৩৯৬জন নারী ও পুরুষ ভোটর রয়েছেন ১২হাজার ৮৩৬জন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রথম প্রশাসক ছিলেন বিএনপি নেতা গোলাম মহিউদ্দিন মিলন। এরপর থেকেই নির্বাচিত মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন বিএনপি নেতা মোতাহের হোসেন মানিক।

বরাবরই সোনাইমুড়ি পৌরসভার নির্বাচনে সহিংস ঘটনা ঘটে। প্রার্থীদের নিজেদের কেন্দ্রে তাঁরা প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা চালায়। 

মন্তব্য লিখুন :