চৌমুহনীতে মারা যাওয়া যুবকের নমুনা পরীক্ষায় করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেনি

নোয়াখালী বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে জ্বরে মারা যাওয়া যুবকের মরদেহের নমুনা পরীক্ষায় করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। শনিবার বিকেলে আইইডিসিআর থেকে প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোমিনুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বৃহস্পতিবার রাতে বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পাবালিক হলের পাশে আজিজিয়া প্লাজার চতুর্থ তলায় ভাড়া বাসায় ২৩ বছর বয়সী ওই যুবকের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে রাতেই ওই ভবন সহ পাশে আরো দুটি বহুতল ভবন লকডাউন করে দেয় স্থানীয় প্রশাসন। এরপর আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ভবনটি ঘিরে রাখে। 

আইইডিসিআর থেকে প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর ভবনগুলো লকডাউন প্রত্যাহার করে আইন শঙ্খলা বাহিনী তুলে নেওয়া হয়েছে।

ওই যুবক চৌমুহনীতে এক দন্ত চিকিৎসকের চেম্বারে সহকারী হিসেবে কাজ করতেন। এক সপ্তাহ ধরে তিনি জ্বরে ভুগছিলেন। দুই দিন  থেকে নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজের এক মেডিসিন বিশেষজ্ঞের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী বাসায় তার চিকিৎসা চলছিল। বৃহস্পতিবার রাতে তার বমির সাথে রক্ত যেতে থাকে। এরপর স্বজনরা তাকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে জেলা সদরের ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। শুক্রবার দুপুরে চৌমুহনী পৌর শ্মশানে পারিবারিকভাবে তার লাশ দাহ করা হয়।

মন্তব্য লিখুন :