চ্যানেল টিটিতে সাংবাদিকদের ঈদ আড্ডা

প্রথম কভারেজ ছাড়া ঈদ উদযাপন

প্রবাসে ঈদের নামাজ কভারেজ এবং শুভেচ্ছা বিনিময়ের বিষয়টি অনেক বড় উৎসবের বিষয়। এবারই প্রথম ঈদের দিনে ছুটির আমেজে কাটাতে হয়েছে। ঈদের নামাজ কভারোজের জন্য ছুটোছুটি ছিলোনা করোনা পরিস্থিতির কারণে। অথচ পেশাগত জীবনের সাংবাদিকদের বেলায় এমন ঘটনা বিরল। অনেকের সাথে দেখা হলেও সামাজিক দুরত্বের কারণে কোলাকুলি করা হয়ে উঠেনি। দুর থেকে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে এটি অনেক কষ্টের। তবুও সবাই সুস্থ থাকুক, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার আমরা সদর্পে ফিরবো সংবাদের চওড়া রাস্তায়।

ঈদের দ্বিতীয় দিনে চ্যানেল টিটি’র বিশেষ আয়োজন ছিলো সাংবাদিকদের ভার্চুয়াল ঈদ আড্ডায় সাংবাদিকতা জীবনে এবারের ঈদ উদযাপনের অনুভূতি তুলে ধরেছেন আমেরিকা, সৌদি আরবে বসরবাসরত সাংবাদিকরা। বাংলাদেশ থেকে যুক্ত থেকে আড্ডার সূত্রপাত করেন চ্যানেল টিটির ব্যুারো প্রধান কাজী লুৎফুল কবির। সঞ্চালনা করেন চ্যানেল টিটির সম্পাদক শিবলী চৌধুরী কায়েস। নিউইয়র্ক সময় সোমবার দুপুর ১টায় শুরু হওয়া আড্ডার বিষয় ছিলো ”করোনাকালে ঈদ ও ঈদের জামাত এবং সাংবাদিকতা”।

সৌদি আরব থেকে যুক্ত হন প্রবাসী সাংবাদিক আরিফুল হক চৌধুরী। মুক্ত আড্ডায় অংশ নেন নিউইয়র্ক থেকে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম, বাংলাভিশনের বিশেষ প্রতিনিধি নিহার সিদ্দিকী, প্রবাসে নোয়াখালীর সম্পাদক রুদ্র মাসুদ, এটিভি২৪ এর প্রধান সম্পাদক ফরিদ আলম, আইটিভির ইউএসএ'র পরিচালক মুহাম্মদ শহিদউল্যাহ, হক-কথা সম্পাদক সালাহউদ্দিন আহম্মেদ, ফিলাডেলফিয়া থেকে বাংলানিউজ ইউএসএ’র সম্পাদক শেখ খুরসান, মুশফিকুল ফজল আনসারী, ওয়াশিংটন থেকে নিউজ-বিডি-ইউএস সম্পাদক এসএম জাহিদ রহমান।

আড্ডায় অংশ নিয়ে নিউইয়র্কের জামাইকা মুসলিম সেন্টারে ঈদের নামাজ আদায় এবং কভারেজ নিয়ে আবেগঘন স্মৃতিরোমন্থন করেন নিহার সিদ্দিকী। এবারে স্বল্প পরিসরে হলেও নামাজ আদায় এবং নামাজ ও জামাইকা মুসলিম সেন্টার থেকে নামাজ ও খুতবা সরাসরি সম্প্রচার করতে পারার অনুভূতি তুলে ধরেন মুহাম্মদ শহিদ উল্যাহ। করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর আবার বেঁচে ফিরে আসার অনুভূতি ব্যাক্ত এবং মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ফরিদ আলম। করোনায় সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির পর বাংলাদেশ থেকে সহকর্মী সাংবাদিকরা প্রতিনিয়ত উদ্বেগ নিয়ে খোঁজ রেখেছেন ফরিদ আলমের, সেই উৎকন্ঠিত সময়ের কথা বলেন মনোয়ারুল ইসলাম। 

আড্ডায় আজ বিদ্রোহী কবি নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তির বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দেন শেখ খুরসান। ঈদের নামাজ আদায় ও খুৎবা প্রদানে নিজের অবস্থান তুলে ধরার পাশাপাশি মত প্রকাশে স্বাধীনতার বিষয়টি তুলে ধরেন মুশফিকুল আনসারী। ঈদের আমেজ নিয়ে নিজের অনুভূতি প্রকাশের পাশাপাশি পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও মানবিকতা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন মুহাম্মদ শহিদ উল্যা, পারিবারিক পর্যায়ে জামাতে ঈদের নামাজ আদায়ের পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পরিসরে ঈদের জামাতে আয়োজন ও খুৎবার বিষয়টি তুলে ধরে রুদ্র মাসুদ। 

প্রায় একযুগ ধরে ওয়াশিংটন ডিসি জামে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করে আসছিলেন এসএম জাহিদুর রহমান। এখানে ঈদের নামাজ আদায় করে আসছিলেন শতাধিক দেশের ধর্মপ্রাণ মুসুল্লীরা কিন্তু এবার করোনার কারণে জামাতে ঈদের নামাজ পড়া হয়নি। সবাইকে ঘরে পড়তে হয়েছে। জামাতে ঈদের নামাজ না পড়তে পারার অতৃপ্তি জানানোর পাশাপাশি বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন সালাহউদ্দিন আহম্মেদ। যেহেতু শেকড় বাংলাদেশে, স্বজনরা থাকেন সেখানে তাই দুশ্চিন্তা থাকে সবসময়ই। সৌদি আরব থেকে আরিফুর রহমান চৌধুরী বলেন- ঈদের নামাজ এখানে সবাইকে ঘরেই পড়তে হয়েছে। ঈদের আগে ৫দিন লকডাউন কিছুটা শিথিল করা হলে মানুষজন কিছুটা হলেও হাঁফ ছেড়ে বাঁচে। এরকম পরিস্থিতি এখানে এর আগে কেউ দেখেনি প্রবাসীরা।

সংক্ষেপে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি তুলে ধরার পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতিও ঈদের দিনে অসংখ্য দূর্ঘটনার বিষয়টি তুলে ধরেন। বিশেষ করে মটরসাইকেল দুর্ঘটনার বিষয়টি ছিলো ভয়ংকর। অনেকস্থানে মুখোমুখি মটরসাইকেল দূর্ঘটনার ঘটনাও ঘটেছে।

সবশেষে সবাইকে মুক্ত আড্ডায় অংশ নেয়ার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে শিবলী চৌধুরী কায়েস আগামি সময়ে চ্যানেল টিটির যেকোন আয়োজনে বিশেষ করে স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে অথবা যেকোন সময় চ্যানেল টিটির কার্যালয়ে আড্ডা অথবা কার্যালয় থেকে সরাসরি আড্ডায় পুনরায় মিলিত হওয়া প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।


মন্তব্য লিখুন :