নোয়াখালী সেটেলমেন্ট অফিস থেকে ৫ দালাল আটক

তিন মাস করে কারাদন্ড

সেটেলম্যান্ট অফিস থেকে আটককৃত ৫ দালাল। ছবি-প্রবাসে নোয়াখালী।

হট লাইনে অভিযোগের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসন ও দুদক যৌথ অভিযান চালিয়ে নোয়াখালী সেটেলমেন্ট অফিস থেকে ৫ দালালকে আটক করেছে। সোমবার বিকালে জেলা শহর মাইজদীর লক্ষ্মীনারায়ণপুরস্থ সেটেলমেন্ট অফিস থেকে তাদের আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে প্রত্যেককে তিন মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়। 

দন্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে- লক্ষীনারায়ণপুর এলাকার মো.আবদুর রহীম (৪৭), মনির হোসেন (৩৮), সাইফুল ইসলাম (৪৫), বাবুল মিয়া (৫৫), নুরুল ইসলাম (৩৯)। 

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা যায়, সেটেলম্যান্ট অফিসের কর্মকর্তাদের স্বাক্ষর জাল করে আটককৃত দালালরা সাধারণ মানুষকে সরকারি পর্ছা, খতিয়ান সরবরাহ করছে। এমন একটি অভিযোগের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসন ও দুদক যৌথ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় এবং ঘটনাস্থল থেকে বেশ কিছু জাল খতিয়ান ও পর্ছাসহ ৫জন দালালকে আটক করা হয়েছে। পরে তাদের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রোকনুজ্জামান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে প্রত্যেককে তিন মাস করে সশ্রমক কারাদন্ড প্রদান করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দুর্নীতি দমক কমিশনের সমন্বিত নোয়াখালী জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মো. সুবেল আহমেদ। 

এ বিষয়ে দুদকের সহকারি পরিচালক মো. সুবেল আহমেদ জানান, আটককৃতদের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তিন মাস করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে নিষিদ্ধ হলেও কিভাবে সরকারি এসব খতিয়ান ও পর্ছা বাহিরে যাচ্ছে। দালাদের সঙ্গে সেটেলমেন্ট অফিসের কেউ জড়িত আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি এর সঙ্গে সরকারি কোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারি জড়িত থাকে তাহলে দুদক তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

মন্তব্য লিখুন :