যৌন নির্যাতন আর নয়!

নোয়াখালীতে নারী ও শিশুর ওপর নির্যাতন এবং সহিংসতার প্রতিবাদে মানববন্ধন

দেশজুড়ে নারী ও শিশুর ওপর ক্রমবর্ধমান নির্যাতন এবং সহিংসতার প্রতিবাদে এবং এই বিষয়ক প্রয়োজনীয় আইন প্রণয়ন, সংস্কার এবং প্রয়োগ নিশ্চিতের দাবিতে নোয়াখালী প্রেসক্লাব চত্ত্বরে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। দেশব্যাপী ‘নারীর সুরক্ষা অভিযান’ এর অংশ হিসেবে পার্টিসিপেটরি রিসার্চ অ্যাকশান নেটওয়ার্ক (প্রান), এনআরডিএস, এফপিএবি, বন্ধন, গান্ধী আশ্রম ট্রাস্ট, প্রচেষ্ট নারী উন্নয়ন মেলা আয়োজনে মানবন্ধন কর্মসূচিতে উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংগঠক, সাংবাদিক, আইনজীবী, তরুন উদ্যোক্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার প্রতিনিধিরা অংশ নেন। 

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, নারীর ওপর সহিংসতার মাত্রা ক্রমেই বেড়ে চলেছে এবং এই সহিংসতা দমনে রাষ্ট্র এতটাই ব্যর্থ যে সহিংসতা এখন মহামারী আকার ধারণ করেছে। শিশু থেকে বৃদ্ধ সকল বয়সের নারী যৌন সহিংসতা ও ধর্ষণের শিকার হচ্ছে; ছেলে শিশুরাও এর থেকে রেহাই পাচ্ছে না। নারীর ওপর নির্যাতন এবং সহিংসতার মাত্রা, ধরন ও নিষ্ঠুরতা বেড়েছে বহুগুণ। এজন্য নারীবিদ্বেষী মানসিকতা, আচরণ ও সংস্কৃতি পরিহার করা, নারীর ওপর সংঘটিত প্রতিটি অপরাধের সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করা, ঘটনার তদন্তের সাথে সম্পৃক্ত পুলিশ, ডাক্তার ও সংশ্লিষ্ট প্রত্যেকের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা, প্রশাসন এবং বিচার ব্যবস্থাকে জনগণের আস্থা ও আশ্রয়স্থলে উন্নীত করতে হবে। 

মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী নারী অধিকার জোটের সভানেত্রী লায়লা পারভীন, পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোটের সভাপতি এডভোকেট গোলাম আকবর, ইনডিপেনডেন্ট টিভির নোয়খালী প্রতিনিধি আবু নাছের মঞ্জু ও নোয়াখালী নাগরিক অধিকার মোর্চার যুগ্ম আহবায়ক নুরুল আলম মাসুদ। 

বক্তরা, হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কর্মস্থল এবং প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ কমিটি গঠন ও সক্রিয় করুন, জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা; জাতীয় পর্যায়ে কমিটি গঠন করে নারীর ওপর সহিংসতা, যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণ সংক্রান্ত সকল আইন বাস্তবায়নের অগ্রগতি ও প্রতিবন্ধকতা নিয়মিত পরিবীক্ষণ এবং যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান এবং সহিংসতার শিকার নারীর শারীরিক, মানসিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষতিপূরণের বিধান রেখে আইন প্রণয়ন ও সংস্কারের দাবি জানায়। 


মন্তব্য লিখুন :