লক্ষ্মীপুরে ধর্ষন ও হত্যার শিকার স্কুল ছাত্রীর পরিবারকে সহায়তা

লক্ষ্মীপুরের আলোচিত স্কুল ছাত্রী হিরামনীর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে কয়েক দিন ধরে  মানববন্ধন ও বিক্ষোভ আন্দোলনের পর ক্যান্সারে আক্রান্ত নিহত হিরামনি বাবা হারুনুর রশিদের চিকিৎসার আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছে নিরাপদ নোয়াখালী চাই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। বুধবার দুপুরে নিহত হিরামনির মা ফাতেমা বেগমের নিকট নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন সংগঠনের উপদেষ্ঠা পরিচালক ও ফেনীর কৃতি সন্তান এড.শাহাজাহান সাজু। এসময় উপস্থিত ছিলেন,লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ, কে,এম, সালাউদ্দিন টিপু, সংগঠন এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাইফুর রহমান রাসেল ও সংগঠক ফিরোজ আলম রিগান। পরে তারা নিহত হিরামনীর কবর যিয়ারত শেষে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ও হিরামনির বেহেস্ত কামনা করে আল্লাহর নিকট দোওয়া ও প্রার্থনা করেন। 

এড, শাহজাহান সাজু জানান, ফেনীর নুসরাত হত্যা কান্ডের পর এবার লক্ষ্মীপুরে ছোট বোন হিরামনিকে ধর্ষনের পর হত্যাকান্ড হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারে ও ফাসিঁর দাবীতে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে সমাজে। যতদিন পর্যন্ত হিরামনির হত্যারকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচার না হবে ততদিন পর্যন্ত আইনিসহায়তাসহ বিচারের দাবীতে ‘নিরাপদ নোয়াখালী চাই’ সংগঠনটি আন্দোলন চালিয়ে যাবে।দেওয়া হবে নিহত পরিবারকে আর্থিকসহ আইনি সহায়তাও।  

প্রসঙ্গতঃ শুক্রবার বিকালে সদর উপজেলার গোপিনাথপুর এলাকায় পালেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী হিরামনিকে নিজ ঘরে একা পেয়ে র্ধষণের পর হত্যা করে পালিয়ে যায় র্দুবৃত্তরা। ঘটনার পর নিজ সন্তান স্কুলছাত্রী হত্যা ধর্ষনের ঘটনায় বিচার চেয়ে নিহতের মা বাদী হয়ে মালা করা হয়। এর পর খুনিদের দ্রুত গ্রেপ্তারসহ সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন করেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ফোরামরাসহ নিরাপদ নোয়াখালী চাই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।


মন্তব্য লিখুন :