সৈয়দা নাহিদা হাবিবা খুলনার শ্রেষ্ঠ ‘জয়িতা’

সম্মাননা গ্রহণ করছেন বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের উপ-সচিব সৈয়দা নাহিদা হাবিবা।

শিক্ষাজীবনে এবং কর্মজীবনে সাফল্য অর্জনকারী নারী হিসাবে খুলনা জেলার শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত হয়েছেন সৈয়দা নাহিবা হাবিবা। বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন তাঁর হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন। অনুষ্ঠানে বিভিণœ ক্ষেত্রে অবদানের জন্য খুলনা মহানগর ও জেলা পর্যায়ের ছয় জয়িতাকে এই সম্মাননা প্রদান করা হয়।

আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ (২৫ নভেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর ২০১৮) এবং বেগম রোকেয়া দিবস (০৯ ডিসেম্বর ২০১৮) উদযাপন উপলক্ষ্যে ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ” শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচন করে খুলনা জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর। নিজ জেলা খুলনায় শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত হওয়া সৈয়দা নাহিবা হাবিবা বর্তমানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব পদে কর্মরত রয়েছেন। এর আগে তিনি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা এবং ব্রাক্ষ্মনবাড়িয়া জেলার সরাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন।

প্রাথমিক শিক্ষার বিকাশে অসামান্য অবদানের জন্য ২০১৬ সালে সৈয়দা নাহিদা হাবিবা চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তখন শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে প্রধামন্ত্রীর কাছ থেকে সম্মাননা গ্রহণ করেছিলেন।

নিজ জেলায় শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত হওয়ার পর পূর্বের কর্মস্থল নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ ও ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার সরাইলের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ও মুঠোফোনে অভিনন্দন জানান। 

সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বলেন, নিজ নিজ ক্ষেত্রে অবদানের জন্য স্বীকৃত জয়িতাদের অবদান সমাজে ছড়িয়ে দিতে পারলে নারীরা আরও বেশী উৎসাহিত হবেন। তৃণমূল থেকে উঠে আসা খুলনার পাঁচ হাজার নারীকে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ দিয়ে স্বাবলম্বী করা হবে। 

অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে গিয়ে সৈয়দা নাহিদা হাবিবা বলেন, প্রজাতন্ত্রের একজন সেবক হিসাবে নিজের সেরাটা দিয়ে কাজ করার চেষ্টা করি। কাজের স্বীকৃতি হিসাবে সম্মাননা প্রাপ্তি অনুপ্রেরণা যোগায় কিন্তু দায়িত্ব আরো বাড়িয়ে দেয়। কর্মক্ষেত্রে অর্পিত দায়িত্ব পালনে সবার সহযোগীতার বিষয়টিও কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করেন তিনি।

খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আছাদুজ্জামান এবং জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ইশরাত জাহান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক নার্গিস ফাতেমা জামিন।

মন্তব্য লিখুন :