দুটি ল্যাবে পরীক্ষা শুরু, নিহত করোনাযোদ্ধাদের পরিবারের পাশে এমপি একরাম

করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো মৃত্যুবরণকারী  সাংবাদিক ও পুলিশ সদস্যের পরিবারের মাঝে দ্বিতীয়বারের মতো আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন নোয়াখালী-৪ সদর-সুবর্ণচর আসনে সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী এমপি। 

সোমবার বিকেলে  জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে একরাম চৌধুরী ফাউন্ডেশন পক্ষ থেকে করোনায় মৃত্যুবরণকারী ভোরের কাগজের সিনিয়র রির্পোটার  আসলাম রহমান ও সময়ের আলো পত্রিকার সাব এডিটর মাহমুদুল হাকিম অপু এবং ছয় পুলিশ সদস্যের প্রত্যেক পরিবারের জন্য ৫০ হাজার টাকা করে মোট ৪ লাখ টাকা অনুদান দেন। এ ছাড়া নোয়াখালীর অসুস্থ্য প্রবীণ সাংবাদিক  ভোরের ডাকের জেলা প্রতিনিধি আহসান উল্যাহ মাস্টারের জন্য তার স্ত্রীর হাতে তুলে দেন ৫০ হাজার টাকা চেক। সুবর্ণচর উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগকে কৃষি যন্ত্রপাতি ক্রয়ের জন্য ১৪ লাখ টাকা, জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের জন্য দুই লাখ টাকা অনুদান দেন এবং জেলা শহর মাইজদীর মধ্যবিত্তদের খোঁজ খবর নিয়ে তাদের ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিতে শহর আ.লীগে সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টুর  হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন। 

এর আগে তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নোয়াখালী আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ ও বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে আনুষ্ঠানিক ভাবে করোনার নমুনা পরীক্ষার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস, সিভিল সার্জন ডা. মো. মোমিনুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নব জ্যোতি খীষা, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহান, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) সভাপতি ডা. ফজলে এলাহী খান, সাধারণ সম্পাদক ডা. মাহবুবুর রহমানসহ অনেকে। 

সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরী বলেন, ব্যক্তি সচেতনতা নয়, সমষ্টিগতভাবে সচেতন হতে হবে। না হয় এ ভাইরাস আমাদের শেষ করে দিবে। তাই সবাইকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানান এবং যারা দোকান পাট খুলেছেন তারা যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে সে জন্য প্রশানকে আেেরা কঠোর হওয়ার নির্দেশও দেন তিনি। 

প্রসঙ্গত : এর আগে ৩০ এপ্রিল  একরাম চৌধুরী ফাউন্ডেশন পক্ষ থেকে করোনায় মৃত্যুবরণকারী ডা. মাঈন উদ্দিনের পরিবারকে দুই লক্ষ, সাংবাদিক হুমায়ুন কবির খোকনের পরিবারকে ৫০ হাজার, পুলিশ কনেস্টেবল জসিম উদ্দিনের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা এবং করোনা পরীক্ষার ল্যাব স্থাপনের জন্য নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে পাঁচ লক্ষ টাকাসহ মোট আট লক্ষ টাকার অনুদান দিয়েছেন সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরী।

এদিকে নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজের সহকারী কিডনী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও ল্যাবের প্রধান সমন্বকারী ডাঃ ফজলে এলাহী খাঁন জানান, প্রথম দিনে তারা বেগমগঞ্জ ও সদর উপজেলার ১০৩টি করোনার নমুনা পরীক্ষার কাজ করছেন। রাতেই তারঁ রিপোর্ট স্বাস্খ্য অধিদপ্তরে পাঠাতে পারবেন। তিনি আরো জানান দুই শিফটে তাদের ল্যাবে ১৯২টি নমনুা পরীক্ষা করা যাবে। 

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজী বিভাগের চেয়ারম্যান ড.ফিরোজ আহমেদ জানান, তারা কীট পেতে আজ একটু বিলম্ব হয়েছে এবং তাদেরকে মাত্র ১১ টি করোনার নমনুা টেস্ট করার জন্য দেয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, তারা প্রতিদিন অন্তত ১৯৬টি নমুনা পরীক্ষা করতে পারবেন। যদিও তাদের সক্ষমতা আরো বেশী রয়েছে। 


মন্তব্য লিখুন :